প্রতিদিন বিনামূল্যে মক টেস্ট ও বিভিন্ন ধরণের নোটস-এর জন্য আমাদের টেলিগ্রাম গ্রুপ ও ফেসবুক পেজে যুক্ত হয়ে যাও । 


All NotesNotes

শব্দ সংক্রান্ত কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাবলী – PDF

Important facts Related to Sound

শব্দ সংক্রান্ত কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাবলী

দেওয়া রইলো শব্দ সংক্রান্ত কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাবলী।

  • স্থির এবং শুস্ক বাতাসে জিরো ডিগ্রি উষ্ণতায় শব্দের বেগ – ৩৩২ মিটার / সেকেন্ড।
  • চার ডিগ্রি উষ্ণতায় জলে শব্দের বেগ প্রায় ১৪৩৬ মিটার / সেকেন্ড।
  • বায়ুর আদ্রতা বাড়লে শব্দের গতিবেগ বেড়ে যায়।
  • বায়ু বা গ্যাসের উষ্ণতা প্রতি ডিগ্রি সেন্ট্রিগেড বৃদ্ধিতে শব্দের গতিবেগ প্রতি সেকেণ্ডে বৃদ্ধি পায় প্রায় ৬১ সেন্টিমিটার।
  • তরল মাধ্যমে শব্দের বেগ গ্যাসীয় মাধ্যমের শব্দের বেগের থেকে বেশি।
  • কঠিন মাধ্যমে শব্দের বেগ তরল মাধ্যমের শব্দের বেগের থেকে বেশি।
  • বায়ু বা গ্যাসের ঘনত্ব কমলে শব্দের গতিবেগ বেড়ে যায়।
  • কোনো বস্তুর বেগ ও শব্দের বেগের অনুপাতকে ওই বস্তুর ম্যাক সংখ্যা বলা হয়ে থাকে।
  • কোনো বস্তুর বেগ শব্দের বেগের চেয়ে বেশি হলে, ওই বস্তুর বেগকে সুপারসনিক বেগ বলা হয়ে থাকে।
  • WHO নির্দেশিত শব্দের নিরাপদ তীব্রতা ৪৫ ডেসিবল পর্যন্ত।
  • ৬৫ ডেসিবলের বেশি তীব্ৰ শব্দ মানুষের স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর।
  • শব্দ একপ্রকার অনুদৈর্ঘ্য তরঙ্গ।
  • কোনো বস্তুর কম্পন ছাড়া শব্দ উৎপন্ন হয় না। শব্দের উৎসকে বলা হয় – স্বনক।
  • শব্দ এক প্রকার শক্তি যা তরঙ্গের আকারে আমাদের কানে এসে পৌঁছয়।
  • মানুষ ২০ থেকে ২০,০০০ কম্পাঙ্ক বিশিষ্ট শব্দ তরঙ্গ শুনতে পায়।
  • চিকিৎসা শাস্ত্রে ব্যবহৃত আলট্রাসোনোগ্রাফি শব্দ তরঙ্গের কম্পাঙ্ক ২০,০০০ এর বেশি। এই ধরণের শব্দ কে শব্দোত্তর শব্দ বলা হয়ে থাকে।
  • মাধ্যম ছাড়া শব্দ বিস্তার করতে পারে না।
  • চাঁদে বায়ু না থাকার কারণে, সেখানে পাশাপাশি দাঁড়িয়ে কথা বললেও তা শোনা যাবে না।
  • আকাশে বিদ্যুৎ চমকের কিছুক্ষন পরে শব্দ শোনা যায় কারণ আলোর গতিবেগ শব্দের গতিবেগের তুলনায় বহুগুন বেশি।
  • শব্দের প্রতিফলন হয় এবিং প্রতিফলিত শব্দ মূল শব্দের থেকে পৃথকভাবে শোনা গেলে ওই প্রতিফলিত শব্দকে মূল শব্দের প্রতিধ্বনি বলা হয়ে থাকে।
  • ডাক্তারদের ব্যবহৃত স্টেথোস্কোপ যন্ত্র শব্দের প্রতিফলনের একটি ব্যবহারিক প্রয়োগ।
  • ফাঁকা হলঘরে কথা বললে যে গমগম শব্দ শোনা যায় তা হল শব্দের অনুরণন।
  • মেঘ ডাকার গুরুগুরু শব্দ আসলে মেঘ গর্জনের মূল শব্দের বহু প্রতিধ্বনির সমষ্টি।
  • ক্ষণস্থায়ী শব্দের রেশ আমাদের মস্তিষ্কে ১/১০ সেকেন্ড পর্যন্ত স্থায়ী হয়। মস্তিষ্কে এরূপ শব্দের রেশ বা অনুভূতি থাকার সময়কালকে শব্দনির্বন্ধ বলা হয়ে থাকে।
  • ক্ষণস্থায়ী শব্দের প্রতিধ্বনি শুনতে হলে শ্রোতা ও প্রতিফলকের মধ্যে নূন্যতম ১৬.৬ মিটার দূরত্ব থাকতে হবে।
  • একমাত্রিক ও দ্বিমাত্রিক শব্দের প্রতিধ্বনি পরিষ্কার ভাবে শুনতে হলে শ্রোতা ও প্রতিফলকের মধ্যে নূন্যতম দুরুত্ব হতে হয় যথাক্রমে ৩৩.২ মিটার ও ৬৬.৪ মিটার।
  • আমরা সেকেন্ডে পাঁচটির বেশি পদাংশ (Syllable ) উচ্চারণ করতে পারি না এবং আমাদের কানও সেকেন্ডে পাঁচটির বেশি পদাংশ পৃথকভাবে শুনতে পায়  না।
  • একটিমাত্র কম্পাঙ্ক বিশিষ্ট শব্দকে সুর (Tone ) এবং একাধিক সুরের সমষ্টিকে স্বর (Note ) বলা হয়।

PDF ডাউনলোড লিংক নিচে দেওয়া রয়েছে ।

আরও দেখে নাও :

নিউটনের গতিসূত্রসমূহ ও ব্যাখ্যা – PDFকিছু বিশেষ ধরণের কাঁচ  – PDF
pH মাত্রা – ধারণা, গুরুত্ব ও বিভিন্ন দ্রবনের মাত্রাশক্তির রূপান্তর – সংরক্ষণশীলতা নীতি 
তেজস্ক্রিয়তা কি ? বিভিন্ন ধরণের তেজস্ক্রিয় বিকিরণআইসোটোপ, আইসোবার, আইসোটোন, আইসোমার

Download Section : 

  • File Name : শব্দ সংক্রান্ত কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাবলী – PDF – বাংলা কুইজ
  • File Size : 1 MB
  • No. of Pages : 03
  • Format : PDF
  • Language : Bengali
  • Subject : Physics
Click Here to Download PDF

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!