For Daily General Knowledge Quizzes and Notes, join our Telegram Group and Facebook page .


General Knowledge Notes in BengaliNotes

বিশ্ব রক্তদাতা দিবস – ইতিহাস,গুরুত্ব ও থিম

World Blood Donor Day

বিশ্ব রক্তদাতা দিবস

আজ ১৪ ই জুন বিশ্ব রক্তদাতা দিবস (World Blood Donor Day)। ২০০৪ সাল থেকে প্রতি বছর  আজকের দিনেই পালন করা হয় বিশ্ব রক্তদাতা দিবস। জেনে নিন কেন পালন করা হয় বিশ্ব রক্তদাতা দিবস,কী এই দিবসের গুরুত্ব ,২০২১ সালের রক্তদাতা দিবসের থিম সম্পর্কে।

রক্তদাতা দিবসের ইতিহাস (History of World Blood Donor Day)

১৮৬৮ সালের ১৪ ই জুন জন্মগ্রহণ করেন অস্ট্রীয় জীববিজ্ঞানী ও চিকিৎসক কার্ল লান্ডষ্টাইনার।১৯৩০ সালে নোবেলজয়ী এই বিজ্ঞানী  রক্তের (Blood Group)চারটি গ্রুপ-এ(A), বি(B), এবি(AB) এবং ও(O) আবিষ্কার করেন ।তাঁর জন্মদিনে তাঁকে শ্রদ্ধা জানিয়েই চালু হয় রক্তদাতা দিবস পালন। The International Federation of Blood Donor Organizations এর উদ্যোগে ১৯৯৫ সাল থেকে আন্তর্জাতিক রক্তদান দিবস পালন চালু হয়। এরপর World Health Organization,International Federation of Red Cross and Red Crescent Societies এবং International Society of Blood Transfusion এর যৌথ উদ্যোগে ২০০৪ সালে প্রথম পালিত হয়েছিল বিশ্ব রক্তদান দিবস। ২০০৫ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য অধিবেশনের পর থেকে প্রতিবছর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  এই  দিবস পালনের জন্য তাগিদ দিয়ে আসছে।

রক্তদাতা দিবসের গুরুত্ব ও উদ্দেশ্য (Importance & Objective of World Blood Donor Day)

রক্তদান জীবন দান, কথাটার সঙ্গে আমরা সকলেই পরিচিত।  কিন্তু  রক্তদানের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে সচেতনতা, সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার মানসিকতা এখনও আমাদের সকলের মধ্যে গড়ে ওঠেনি । প্রতি দিন বিশ্বে রক্তের অভাবে বহু মানুষের প্রাণ গেলেও সুস্থ মানুষেরা অনেকেই রক্তদান সম্পর্কে ভুল ধারণা, ইতস্তত ভাব কাটিয়ে উঠতে পারেননি। রক্তদান সম্পর্কে সচেতনতা গড়ে তুলতে প্রতি বছর ১৪ জুন ওয়ার্ল্ড ব্লাড ডোনর ডে পালিত হয় সারা বিশ্বে।যারা স্বেচ্ছায় ও বিনামূল্যে রক্তদান করে লাখ লাখ মানুষের প্রাণ বাঁচাচ্ছেন তাদেরসহ সাধারণ জনগণকে রক্তদানে উৎসাহিত করাই এ দিবসের উদ্দেশ্য।

বর্তমানে করোনা অতিমারীর পরিস্থিতে রক্তদানের প্রয়োজনীতা আরোও অনেক অংশে বেড়ে গিয়েছে । বিভিন্ন সরকারী – বেসরকারি সংস্থা,এনজিও,ক্লাব রক্ত দান শিবিরের আয়োজন করলেও রক্তের ঘাটতি থেকেই যাচ্ছে। ফলস্বরূপ প্রাণহানি ঘটছে  বহু মানুষের। তাই আমাদের সকলকে রক্তভাবের ফলে সৃষ্ট করুণ অবস্থার কথা ভেবে  এগিয়ে এসে প্রয়োজন ও সময়মতো রক্ত দান করতে হবে।

রক্তদাতা দিবসের থিম (World Blood Donor Day Theme)

এই বছর অতিমারী বা জরুরিকালীন অবস্থায় রক্তদানের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে সচেতনতা গড়ে তুলতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রক্তদাতা দিবসের থিম/প্রতিপাদ্য হল : “Give blood and keep the world-beating” . দুর্যোগের সময় সচেতনতা বৃদ্ধি, যোগ্য দাতাদের রক্ত দানের জন্য অনুপ্রেরিত করা এবং রক্তের নিরাপদ ও সুষ্ঠ ভাবে রক্তদান বজায় রেখে মানুষের জীবন রক্ষা ও স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটানো।

আয়োজক দেশ (Host Country)

২০২১ সালের বিশ্ব রক্তদাতা দিবসের আয়োজক দেশ হল ইতালি । ইতালির রাজধানী রোমে  ২০২১ সালের রক্তদাতা  দিবসের গ্লোবাল ইভেন্ট আয়োজিত হবে ১৪ ই জুন।

২০২১ সালের রক্তদাতা দিবসের উদ্দেশ্য :

  • বিশ্বের সমস্ত রক্তদাতাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করা।
  • রক্তদান সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করা।
  • রক্তদান সম্পর্কে যুব সমাজকে সচেতন ও আগ্রহী করা।
  • জনগণের সংহতি ও সামাজিক সম্প্রীতি বাড়াতে রক্তদানের সম্প্রদায়গত মূল্যবোধ প্রচার করা।
  • স্বাস্থ্যের প্রচারে অংশীদার হিসাবে যুবকসমাজকে উদ্বুদ্ধ করা।

আরো কিছু তথ্য :

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ২০২০ এর একটি রিপোর্ট অনুসারে ,

  • প্রতিবছর প্রায়  ১১ কোটি ইউনিট রক্ত স্বেচ্ছায় দান করা হয়।
  • বিশ্বের মোট রক্তদানের  প্রায় ৩৮ শতাংশ সংগ্রহ হয় উন্নয়নশীল দেশগুলো থেকে, যেখানে বাস করে বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ৮২ শতাংশ মানুষ।
  • বিশ্বের মোট রক্তদানের প্রায় ৪০ % সংগ্রহীত হয় উন্নত দেশগুলির থেকে ,যেখানে পৃথিবীর  ১৬% লোক বসবাস করে।
  • বিশ্ব স্বাস্থ সংস্থা এর ২০১৫ এর রিপোর্ট অনুসারে ১৭৩ এর মধ্যে ১২৩ টি দেশে  অর্থাৎ প্রায় ৭১% দেশে ন্যাশনাল ব্লাড পলিসি রয়েছে ।
  • লো ইনকাম দেশগুলিতে ৫৪% রক্ত ৫ বছরের নিচের শিশুদের দেওয়া  হয়।
  • উন্নত দেশ গুলিতে প্রায় ৭৫% রক্ত ৬০+ বয়সের ব্যক্তিদের দেওয়া হয়।
  • ৭৯ টি দেশে ৯০% শতাংশ রক্তদান হয় স্বেচ্ছায় রক্তদানের মাধ্যমে।

বিশ্বের অনেক দেশে মানুষের রক্তের চাহিদা হলে নির্ভর করতে হয় নিজের পরিবারের সদস্য বা নিজের বন্ধুদের রক্তদানের ওপর, আর অনেক দেশে পেশাদারি রক্তদাতা অর্থের বিনিময়ে রক্ত দান করে আসছে রোগীদের। অথচ বিশ্বের নানা দেশ থেকে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করে জানা যায়, ‘নিরাপদ রক্ত সরবরাহের’ মূল ভিত্তি হলো স্বেচ্ছায় ও বিনামূল্যে দান করা রক্ত। কারণ তাদের রক্ত তুলনামূলকভাবে নিরাপদ ।

আরো দেখে নাও : 

Mukesh Dhariwal

Active author of BanglaQuiz.in. Quiz and GK enthusiast , Quiz Master
Back to top button
error: Alert: Content is protected !!