Mixed MCQ

সাধারণ জ্ঞান MCQ – সেট ২৭৮। Daily General Awareness | Bengali

Daily General Awareness Practice Set - 278

সাধারণ জ্ঞান MCQ – সেট ২৭৮

বাংলা কুইজের পক্ষ থেকে দেওয়া রইলো আজকের ১০ টি বাছাই করা সাধারণ জ্ঞানের মাল্টিপল চয়েস প্রশ্ন ও উত্তরের (General Knowledge Questions and Answers ) সেট । এই ধরণের সাধারণ জ্ঞান প্রশ্নগুলির মান রাখা হয়েছে বর্তমানে PSC এর প্রশ্নের মান মাথায় রেখে । সাথে দেওয়া রইলো প্রতিটি প্রশ্নের সাথে বর্ণনা যা প্রশ্নগুলি বুঝতে আরো সাহায্য করবে ।


Bangla General Knowledge Question and Answer – All Set Together – Click Here

এরকম আরো সাধারণ জ্ঞান মাল্টিপল চয়েস পোস্ট পেতে হলে আমাদের ওয়েবসাইটিতে নিয়মিত ফলো করো ও আমাদের ফেসবুক পেজটিকে লাইক করো ।


General Knowledge Mock Test – বাংলায় দিতে চাইলে এখানে ক্লিক করোBangla Quiz Mock Tests  

সাধারণ জ্ঞান MCQ প্রশ্ন সেট :

৪২৭১. ভারতের শীতলতম স্থান কোনটি?

(A) অমরনাথ
(B) শ্রীনগর
(C) লেহ
(D) দ্রাস

উত্তর :
(D) দ্রাস

দ্রাস ভারতের কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল লাদাখের কার্গিল জেলার অন্তর্গত একটি শহর। এই শহরকে লাদাখের প্রবেশদ্বার বলা হয়। এটি ভারতের শীতলতম স্থান এবং পৃথিবীর দ্বিতীয় শীতলতম বাসযোগ্য স্থান।


৪২৭২. শিখদের দশম গুরু গুরু গোবিন্দ সিং কার পুত্র ছিলেন ?

(A) গুরু নানক দেব
(B) গুরু অর্জুন দেব
(C) গুরু রামদাস
(D) গুরু তেগ বাহাদুর

উত্তর :
(D) গুরু তেগ বাহাদুর

গুরু গোবিন্দ সিং ছিলেন নবম গুরু তেগ বাহাদুরের পুত্র। তেগ বাহাদুর ইসলাম গ্রহণে অস্বীকার করায় ঔরঙ্গজেব তাঁর শিরশ্ছেদ করেছিলেন।

দেখে নাও বিভিন্ন শিখ গুরু সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাবলী – click here .


৪২৭৩. কোয়না  বাঁধ ভারতের  কোন রাজ্যে অবস্থিত?

(A) মধ্য প্রদেশ
(B) রাজস্থান
(C) মহারাষ্ট্র
(D) গুজরাট

উত্তর :
(C) মহারাষ্ট্র

ভারতের মহারাষ্ট্রে কোয়না বাঁধ অন্যতম বৃহত্তম নদী বাঁধ। এটি একটি রাবল-কংক্রিটের বাঁধ, যা কোয়না নদীর উপর নির্মিত।কোয়না নদীর উৎস সহ্যাদ্রি পর্বতমালার শৈলশহর মহাবালেশ্বর এ। বাঁধটি পশ্চিম ঘাটের কোলে চিপলুন এবং কারাদ এর সংযোগকারী জাতীয় সড়কের কাছে,সাতারা জেলার কোয়নানগর-এ অবস্থিত।

দেখে নাও ভারতের গুরুত্বপূর্ণ কিছু বাঁধের তালিকা – Click Here 


৪২৭৪. নিচের কোন রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ইমিস লা পাস অবস্থিত ?

(A) সিকিম
(B) লাদাখ
(C) উত্তরাখন্ড
(D) অরুণাচল প্রদেশ

উত্তর :
(B) লাদাখ

এটি লাদাখ (ভারত) এবং তিব্বতের (চীন) মধ্যে অবস্থিত।

দেখে নাও ভারতের গুরুত্বপূর্ণ পাস – এর তালিকা – Click Here .


৪২৭৫. সাধারণ ব্যাটারিতে কোন অ্যাসিড ব্যবহৃত হয়?

(A) নাইট্রিক অ্যাসিড
(B) হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড
(C) কার্বনিক অ্যাসিড
(D) সালফিউরিক অ্যাসিড 

উত্তর :
(D) সালফিউরিক অ্যাসিড

সাধারণ ব্যাটারিতে সালফিউরিক অ্যাসিড ব্যবহৃত হয়। প্রচলিত কোথায় ব্যাটারি অ্যাসিড বলতে সালফিউরিক অ্যাসিড বোঝায়।


৪২৭৬. বর্তমানে ভারতের মোট হাইকোর্টের সংখ্যা – 

(A) ২০
(B) ২২
(C) ২৪
(D) ২৫

উত্তর :
(D) ২৫

বর্তমানে ভারতে ২৫টি হাইকোর্ট রয়েছে । ২৫তম হাইকোর্টটি অন্ধ্রপ্রদেশের অমরাবতীতে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ।


৪২৭৭. ভারতে আনুষ্ঠানিকভাবে কখন বাজেট চালু হয়?

(A) ১৮৬০
(B) ১৯৪৭
(C) ১৮৫০
(D) ১৮৭৫

উত্তর :
(A) ১৮৬০

  • বাজেট আনুষ্ঠানিকভাবে ভারতে  প্রবর্তিত হয়েছিল ১৮৬০ সালে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি দ্বারা।   এটি ভারতের অর্থমন্ত্রী জেমস উইলসন ১৮৬৯ সালে উপস্থাপন করেছিলেন।
  • বাজেট ভারতীয় সংবিধানের বার্ষিক আর্থিক বিবৃতি হিসাবেও পরিচিত।
  • আর কে শানমুখাম চেট্টি ২৬শে  নভেম্বর, ১৯৪৭ সালে স্বাধীন ভারতের প্রথম ইউনিয়ন বাজেট উপস্থাপন করেন।

৪২৭৮. কুষ্ঠরোগের জন্য দায়ী 

(A) ভাইরাস
(B) ব্যাকটেরিয়া
(C) প্রটোজোয়া
(D) ছত্রাক 

উত্তর :
(B) ব্যাকটেরিয়া

কুষ্ঠরোগ (হ্যানসেনের রোগ (এইচডি) নামেও পরিচিত) হলো মাইকোব্যাক্টেরিয়াম লেপ্রি বা মাইকোব্যাক্টেরিয়াম লেপ্রোমাটোসিস ব্যাকটেরিয়া দ্বারা দীর্ঘমেয়াদী সংক্রমণ।সংক্রমণটি স্নায়ু, শ্বাস প্রশ্বাসের নালী, ত্বক এবং চোখের ক্ষতি করতে পারে।


৪২৭৯. নিচের কোন চুক্তিটি ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় হিন্দু মুসলিম ঐক্যের জন্য গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি হিসাবে বিবেচিত?

(A) পুনা চুক্তি
(B) লখনউ চুক্তি
(C) সিমলা চুক্তি
(D) এলাহাবাদ চুক্তি

উত্তর :
(B) লখনউ চুক্তি

ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় হিন্দু মুসলিম ঐক্যের নিরিখে লখনউ চুক্তি একটি গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি হিসাবে বিবেচিত হয়।

লখনউ চুক্তিটি হয়েছিল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস এবং মুসলিম লীগের মধ্যে। এটি ১৯১৬ সালের ডিসেম্বরে লখনউতে অনুষ্ঠিত হয়েছিল।


৪২৮০. পৃথিবীর মুক্তিবেগ  (escape velocity ) হলো 

(A) ১১.২ কিমি / সে
(B) ১২.৯ কিমি / সে
(C) ১৩.৪ কিমি / সে
(D) ১০.৫৬ কিমি / সে

উত্তর :
(A) ১১.২ কিমি / সে

মুক্তিবেগ (Escape velocity) বলতে এমন একটি বেগকে বুঝানো হয় মহাকর্ষীয় ক্ষেত্রে যে মানের বেগে নিক্ষিপ্ত কোন বস্তুর গতিশক্তি ও মহাকর্ষীয় বিভবশক্তির সমষ্টি শুন্য হয়। মুক্তিবেগে কোন বস্তুকে কোন মহাকর্ষীয় ক্ষেত্র থেকে শুন্যে ছুড়ে দেয়া হলে তা আর ঐ মহাকর্ষীয় ক্ষেত্রে ফিরে আসে না।

পৃথিবীর ক্ষেত্রে মুক্তিবেগের মান প্রতি সেকেন্ডে ১১.২ কি.মি.। অর্থাৎ কোনো বস্তুকে প্রতি সেকেন্ডে ১১.২ কি.মি. গতিবেগে ওপরের দিকে ছূড়তে পারলে সেটা আর নিচের দিকে না পড়ে, মহাশূন্যে পৃথিবীর চারিদিকে ঘুরতে থাকবে।


আরো দেখুন : 

To check our latest Posts - Click Here

Telegram

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!