Telegram
NotesGeneral Knowledge Notes in Bengali

কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ ফোর্স তালিকা

Central Armed Police Forces

Rate this post

কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ ফোর্স তালিকা

প্রিয় পাঠকেরা, আজকে আমরা আলোচনা করবো ভারতের কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ ফোর্স তালিকা নিয়ে। ভারতে মোট কটি কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ বাহিনী রয়েছে, সেগুলি কবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল, তাদের সদর দপ্তর তালিকা কোথায় তার একটি সুস্পষ্ট তালিকা তোমরা আজ পেয়ে যাবে। List of Central Armed Police Forces of India

কতগুলি কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ ফোর্স রয়েছে ?

ভারতের মোট সাতটি কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ ফোর্স রয়েছে । এগুলি হল –

নংবাহিনী
অসম রাইফেলস (AR)
বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স (BSF)
সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্স (CISF)
সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স (CRPF)
ইন্দো-তিবেতিয়ান বর্ডার পুলিশ (ITBP)
ন্যাশনাল সিকিউরিটি গার্ড  (NSG)
সশস্ত্র সীমা বল (SSB)
কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ বাহিনী তালিকা

দেখে নাও : ভারতের সেনাবাহিনী প্রধান তালিকা ২০২২ – PDF

নিচে এই সাতটি বাহিনী সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেওয়া রইলো।

১. অসম রাইফেলস

  • প্রতিষ্ঠা : ১৮৩৫ সাল।
  • সদর দপ্তর : শিলং, মেঘালয় ।
  • মোটো : Sentinels of the North-East
  • কাজ : উত্তর-পূর্ব ভারতে জঙ্গি নাশকতা রোধ, উপজাতি আন্দোলনের কারণে সৃষ্ট গোলমাল রোধের উদ্দেশ্যে এই ফোর্স মোতায়েন করা হয়ে থাকে।

এই বাহিনী স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক (ভারত) দ্বারা পরিচালিত হয়। এটি একটি আধা-সামরিক বাহিনী।

ভারত যখন ব্রিটিশ শাসনাধীন তখন এই আসাম রাইফেলসের গোড়াপত্তন ঘটে ক্যাচার লেভি নাম দিয়ে। পরবর্তীকালে এই বাহিনীর নাম বহুবার পরিবর্তন হয় এবং সর্বশেষ ১৯১৭ সালে এর নাম হয় আসাম রাইফেলস। তখন থেকে এই নামটিই বিদ্যমান রয়েছে।

২. বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স

প্রতিষ্ঠা : ১৯৬৫ সালের ১লা ডিসেম্বর।
সদর দপ্তর : নতুন দিল্লি।
মোটো : Duty unto Death
কাজ : ভারত-পাকিস্তান ও ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে নজরদারির উদ্দেশ্যে এই ফোর্স মোতায়েন করা হয়ে থাকে।

বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স বা ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) ভারত সরকারের একটি সীমান্ত প্রহরী সংস্থা। ভারতের অধিকাংশ আধাসামরিক বাহিনীর মতো বিএসএফ-ও ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের প্রশাসনিক নিয়ন্ত্রণাধীন।

দেখে নাও : বিভিন্ন দেশের গোয়েন্দা বাহিনী তালিকা – PDF – গোয়েন্দা সংস্থা

৩. সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্স

প্রতিষ্ঠা : ১৯৬৯ সালের ১০ই মার্চ।
সদর দপ্তর :
নতুন দিল্লি।
মোটো :
Protection & Security
কাজ :
বিভিন্ন কেন্দ্রীয় সরকারি শিল্প, খনি অঞ্চল, বিমানবন্দর প্রভৃতি অঞ্চলে নজরদারির উদ্দেশ্যে এই ফোর্স মোতায়েন করা হয়ে থাকে ।

CISF কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় এবং এর সদর দপ্তর নয়াদিল্লিতে অবস্থিত। এটি ১০ই মার্চ পার্লামেন্টে একটি এক্ট এর মাধ্যমে তৈরী হয়। পরবর্তীকালে এটিকে সশস্ত্র বাহিনীর অন্তর্ভুক্ত করা হয় ১৯৮৩ সালে।

৪. সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স

প্রতিষ্ঠা : ১৯৩৯ সালের ২৭শে জুলাই।
সদর দপ্তর :
নতুন দিল্লি।
মোটো :
Seva or Nishta
কাজ :
দেশের মধ্যে কোনো রকম তাৎক্ষনিক গন্ডগোলের সূচনা হলে এই ফোর্সকে প্রেরণ করা হয়ে থাকে সেই গন্ডগোল থামানোর উদ্দেশ্যে। মূলত ভিড় নিয়ন্ত্রণ, নির্বাচন, দাঙ্গা রোধ, ভিআইপি ও প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সময় উদ্ধার কার্যে এই ফোর্স ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স বা সিআরপিএফ (CRPF) ভারতের বৃহত্তম আধা-সামরিক বাহিনী। অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা সংক্রান্ত দায়িত্ব এই বাহিনীকে দেওয়া হয়ে থাকে। সিআরপিএফ-এর প্রধান ভূমিকা হচ্ছে পুলিশের অভিযানে রাজ্য / কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে আইন-শৃঙ্খলা ও বিদ্রোহ দমনে সহযোগিতা। এটি ভারত সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের (MHA) অধীনে কাজ করে।

প্রতিষ্ঠার সময় এই বাহিনীর নাম ছিল Crown Representative’s Police। পরবর্তীকালে ১৯৪৯ সালের ২৮শে ডিসেম্বর CRPF Act অনুসারে এর নামরণ হয় Central Reserve Police Force ।

দেখে নাও : ভারতের বিভিন্ন প্রতিরক্ষা বাহিনীর মূলমন্ত্র

৫. ইন্দো-তিবেতিয়ান বর্ডার পুলিশ

প্রতিষ্ঠা : ১৯৬২ সালের ২৪শে অক্টোবর।
সদর দপ্তর :
নতুন দিল্লি।
মোটো :
Shaurya – Dridhata – Karm Nishtha
কাজ :
ভারত ও তিব্বত সীমান্তে পাহারা ও নজরদারির উদ্দেশ্যে এই ফোর্স মোতায়েন করা হয়ে থাকে।

১৯৬২ সালের চীন-ভারত যুদ্ধের পরিপ্রেক্ষিতে CRPF Act -এর অধীনে ২৪শে অক্টোবর১৯৬২ সালে এই ফোর্সটির প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল। এটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের অধীনে কাজ করে।

৬. ন্যাশনাল সিকিউরিটি গার্ড

প্রতিষ্ঠা : ১৯৮৬ সালের ২২শে সেপ্টেম্বর।
সদর দপ্তর :
নতুন দিল্লি।
মোটো :
Omnipresent Omnipotent Security
কাজ :
দেশের অভ্যন্তরীণ সুরক্ষা সুনিশ্চিন্ত করতে এবং দেশের যে কোনো অঞ্চলে জঙ্গি নাশকতা মোকাবিলা করার উদ্দেশ্যে এই বাহিনী মোতায়েন করা হয়ে থাকে।

ন্যাশনাল সিকিউরিটি গার্ড বা রাষ্ট্রীয় সুরক্ষা গার্ড (এনএসজি) ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের (এমএইচএ) অধীনে একটি বেসামরিক সন্ত্রাসবাদ বিরোধী সংগঠন।

৭. সশস্ত্র সীমা বল

প্রতিষ্ঠা : ১৯৬৩ সালের ১৫ই ফেব্রুয়ারি ।
সদর দপ্তর :
নতুন দিল্লি।
মোটো :
Service, Security & Brotherhood
কাজ :
প্রধানত নেপাল ও ভুটান সীমান্তে নজরদারির উদ্দেশ্যে এই ফোর্স মোতায়েন করা হয়ে থাকে।

ভারত-চীন যুদ্ধের পর ১৯৬৩ সালের ১৫ই ফেব্রূয়ারী তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরু, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল এবং ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোর তদানীন্তন অধিকর্তা ভোলানাথ মল্লিক এই সংস্থাটি স্থাপন করেন। তখনকার নাম ছিল স্পেশাল সার্ভিস ব্যুরো।

To check our latest Posts - Click Here

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!
Nobel 2022 Winner List in Bengali Current Affairs in Bangla – 26th October 2022 বাংলাদেশের নব নির্মিত পদ্মা সেতু – জেনে নিন আকর্ষণীয় তথ্য